ওয়াশিং মেশিনে জামাকাপড় কাচার কিছু বিশেষ টিপস !

Video Description

ওয়াশিং মেশিনে জামাকাপড় কাচার কিছু বিশেষ টিপস ! আধুনিক জীবনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়েছে প্রযুক্তিও , একের পর এক বিজ্ঞান এর আবিষ্কার এ আমাদের জীবন অনেক সহজ হয়েগেছে। ব্যস্ত জীবনে সময়ের বড়োই অভাব, এই ঘাটতি মেটাতেই চটজলদি সমাধান হলো ওয়াসিং মেশিন যা এক অভিনব সংযোজন। কিন্তু মানুষের মধ্যে কিছু ভ্রান্ত ধারণা আছে আসুন জেনে নি - অনেকেই মনে করেন ওয়াসিং মেশিন এ কাপড়ের সুতো আলগা হয়ে যায় কাপড়ের ক্ষতি হয়, একসাথে অনেকবেশি জামাকাপড় কাঁচা যায়না, যেহেতু বৈদ্যুতিন যন্ত্র তাই ইলেকট্রিক বিল আসবে মাত্রা ছাড়া। সাবানের পরিবর্তে পাউডার ডিটারজেন্ট ব্যবহার হয় বলে অনেকে মনে করেন পরিষ্কার হয়না জামাকাপড় ঠিক ভাবে। এইগুলি হলো একেবারেই ভুল ধারণা। এবার চলুন জেনে নি কিছু বিষয় যেগুলো মাথায় রাখলে ওয়াসিং মেশিন ব্যবহার করে জীবন অনেক সহজ হয়ে যাবে আপনাদের। আপনার চাহিদা অনুযায়ী সঠিক ওয়াসিং মেশিনটি কিনলেই আপনার কাজ অনেক সহজ হয়েযাবে, মাথায় রাখুন আপনার বাজেট ও পারফরমেন্স এর । মেশিন কিনলেই তো হলোনা সেটা কিভাবে সময়ের অপচয় কমাবে সেটা জেনে নেওয়া জরুরি, ১) টপ লোডিং ওয়াসিং মেশিন - এটি দ্রুত কাপড় কাচার জন্য বহুল প্রচলিত, দাম কম হওয়ার জন্য জনপ্রিয়তা বেশি, ওজন হালকা হয় তাই সুবিধা মতো সরানো যায় . কিন্তু এই মেশিন এর কিছু অসুবিধাও আছে যেমন বেশি জল খরচ করে, গরম জলের ব্যবহার বেশি করে বলে বিদ্যুৎ এর ব্যবহার বেশি হয়. ২) ফ্রন্ট লোডিং ওয়াসিং মেশিন - বর্তমানে এই মেশিন কেনার চল বেশি দেখা যায় কারণ খুব বেশি যত্ন নিয়ে কাপড় কাছে এই মেশিন, কম জল ব্যবহার করে, খুব অল্প ডিটারজেন্ট দিলেই জামা কাপড় ঝকঝকে করে দেয়, কিন্তু খারাপ দিক হলো- সময় খুব বেশি লাগে , ওজন এ ভারী হয় তাই যেখানে সেখানে সরানো সম্ভব হয়না। ওয়াসিং মেশিন কেনার সময় এর ওয়ারেন্টি ভালো করে দেখে নিন, সার্ভিসিং নিয়েও কথা বলে নেওয়া জরুরি। যেটা অবশ্যই দেখবেন তা হলো ওয়াসিং মেশিন এর ধারণ ক্ষমতা, মূলত ৬-৯ কেজি ভার নিতে পারে এই মেশিন, তাই তার বেশি জামাকাপড় দিলে মেশিন টি খারাপ হওয়ার সম্ভবনা থেকে যায়।

Join more than 1 million learners

On Spark.Live, you can learn from Top Trainers right from the comfort of your home, on Live Video. Discover Live Interactive Learning, now.