তোমার ঠোঁট আমার ঠোঁট ছুঁলো ! (Significance of kiss day and benefits of kissing on lips)

  • by

গবেষনা বলছে, শুধুমাত্র একটি বিষয় দিনেই নয়, বরং প্রতিদিনই নিজের প্রিয় মানুষটিকে বারেবারে চুমু খাওয়া উচিত।বৈজ্ঞানিক মতে,লিপ কিস করলে, শুধু ভালোবাসা বাড়ে না সেই সঙ্গে আমাদের দেহের ভিতরে এমন কিছু পরিবর্তন হয়, যার প্রভাবে একাধিক শারীরিক উপকারও পাওয়া যায়। লিপ কিসের মাধ্যমে শরীরে নানা রকম উপকার হয়। শুধুমাত্র তাই নয়,একাধিক জটিল রোগের জটিল রোগের প্রকোপ ও কমে এমন ঠোঁটের স্পর্শে। এমনকি শরীর চাঙ্গাও হয়ে ওঠে।

১৩ই ফেব্রুয়ারি কিস ডে। ভালোবাসার সপ্তম দিনেই এই বিশ্ব চুমু দিবস পালন করেন প্রেমিক প্রেমিকারা। বছরের শুরুতে যাতে আপনার জীবনে ভালোবাসার কোনো অভাব না হয় তার জন্য, কিছু শারিরীক উপকারীতার উপর আলোকপাত করা হলো।

কিস্ ডে -এর আগেই রইলো চুম্বনের বিশেষ উপকারীতা গুলি-

১) প্রতিদিন চুম্বনের ফলে,স্ট্রেস কমে এবং মন মেজাজও চাঙ্গা হয়ে ওঠে। এক বৈজ্ঞানিক গবেষণায় দেখা গেছে, লিপ কিস কিস করা মাত্রই আমাদের শরীরে অক্সিটোসিন, ডোপামিন এবং সেরোটিন নামক বেশকিছু হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। ফলে, কার্টিজল নামক স্ট্রেস হরমোনের প্রভাব এতটাই কমে যায়, যার দরুন, স্ট্রেস,অ্যাংজাইটি এবং দুশ্চিন্তা কমাতে সময় লাগে না। বর্তমানে অনেকেই প্রতিদিন নানা রকম স্ট্রেসপর কারণে মনসিক অবসাদে ভোগেন। তার মানে বোঝাই গেল, শুধুমাত্র ভালোবাসার খাতিরে নয়, শরীরকে চাঙ্গা রাখতেই চুমু খাওয়ার বিশেষ প্রয়োজন রয়েছে।

২) চুমু ব্লাড প্রেসারকে নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে। আমাদের শরীরে রক্তচাপকে বেঁধে রাখতে, স্বাভাবিক ভাবেই চুম্বনের কোনো বিকল্প নেই। লিপলক হওয়া মাত্রই সারা শরীরে, রক্তের প্রবাহের বিশেষ উন্নতি ঘটে। ফলে ব্লাড প্রেসার অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৩) প্রতিদিন চুম্বনের মাধ্যমে কমতে পারে হার্টঅ্যাটাকের প্রবনতা। লিপ কিস হার্টকে চাঙ্গা করে তোলে, কারন হার্টের রোগের পিছনে রক্তচাপের ভূমিকা যে কম নয় তা বলাই বাহুল্য।

৪) চুম্বন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। এক বিশেষ গবেষণায় দেখা গেছে, একে অপরকে লিপ কিস্ করার সময়, এক শরীর থেকে আর এক শরীরে উপকারী জীবানুদের প্রবেশ ঘটে। আর এই সময় উপকারী জীবানুদের প্রবেশ ঘটার ফলে, শরীরে ইমিউনিটি অথবা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটাতে সময় লাগে না। ফলে ছোটো বড় কোনো রোগই আপনার ধারে ঘেঁষতে পারেনা।

তাই দূষণ ও নানাবিধ রোগের আক্রমণে মাঝে শরীরকে চাঙ্গা রাখতে নিয়মিত ভালোবাসার মানুষটিকে বারবার লিপ কিস্ করতে ভুলবেন না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।