গর্ভাবস্থায় দেখা কোন স্বপ্ন কোন ভবিষ্যতের ইঙ্গিত দেয় জানেন? (Pregnancy dreams and what they really mean)

গর্ভাবস্থায় মেয়েদের মুড খুব সুইং হয়। যার জন্য এইসময় এই অবস্থায় কোনো মেয়ের সঙ্গে ঝগড়া না করতে বা তাঁকে কোনোভাবে উত্তেজিত না করে তুলতে। এই সময় ঘুম ভালো হয় না। আর ঘুম না হওয়াটাই খুব স্বাভাবিক। কারণ এইসময় কোমরে যন্ত্রণা হয়, মনিং সিকনেস হয়। ঘন ঘন প্রস্রাব পাওয়ার দরুন মহিলারা বারবার ঘুম থেকে ওঠেন। আর এই নয় মাস ধরে একটা মানসিক টানাপোড়েন চলে, আর তার প্রভাব পড়ে তার স্বপ্নে। গর্ভাবস্থায় থাকাকালীন নানারকম চিন্তা তাকে কুড়ে কুড়ে খায়। বারবারই তার মনে হয়, সে সন্তানের জন্ম ঠিকঠাক ভাবে দিতে পারবে কিনা। এই সময় যদি আপনিও স্বপ্ন দেখেন, তা একদম অন্য। তার কারন আপনার শরীরে আরও একটি প্রাণ আছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন স্বপ্নের কি মানে?

১) জলাশয়ের স্বপ্ন –

যদি আপনি জলের স্বপ্ন দেখেন, অর্থাৎ কোনো নদী, পুকুর, সমুদ্রকে নিয়ে যদি স্বপ্ন দেখেন তবে, আপনার জীবনে পরিবর্তন আসতপ চলেছে। জল মানেই নদী, সমুদ্রকে বোঝায়। নদী চিরপ্রবাহমান। আবার স্থির জলের সামনে আপনি দাঁড়িয়ে রয়েছেন, এই ধরনের কোনো স্বপ্ন দেখলে, আপনি বুঝবেন, আপনার সন্তান ভূমিষ্ট হতে বেশী দেরি নেই। ফলে সে আপনার কাছে খুব তাড়াতাড়ি আসতে চলেছে।

২)হারানোর ভয়-

বেশীর ভাগই গর্ভবস্থায় থাকাকালীন মায়েরা স্বপ্ন দেখেন, তারা তাদের সন্তানদের কোনো স্কুলের মাঠে বা কোনো মেলায়, ভুলে রেখে চলে এসেছেন। আসলে মাতৃত্ব শুধুমাত্র একটি অনুভূতি নয়। এইটি একটি বড় দায়িত্ব। যা নিজের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেওয়ার আগে অনেকেই ভাবেন, এইটা অনেক বড় কাজ। আদৌও কি পারবো? ক্রমাগত এই সমস্ত ভাবনা থেকেই এই ধরনের স্বপ্ন দেখার প্রবনতা দেখা যায়।

৩) ছেলে না মেয়ে?

এই ভাবনা কিন্তু সকল মাতৃগর্ভস্থ মায়েদের আগে আসে। বিশেষ করে অবশ্য এইভাবনা গুলি পারিবারিক অবস্থার কথা ভেবে নানারকম চিন্তাভাবনায় মানসিক অবসাদে স্বপ্ন দেখেন। এই সময় অনেকেই দেবদেবীর স্বপ্ন দেখেন। যেমন দূর্গা, লক্ষ্মীর স্বপ্ন দপখেন তারা সম্ভবত কন্যা সন্তানের স্বপ্ন দেখেন। অনেকেই গনেশ ও কার্তিকের স্বপ্ন দেখেন, তারা পুত্র সন্তানের কথা ভাবেন।

৪) পারিবারিক সাপোর্ট-

এই সময় পারিবারিক সাপোর্টের থেকে বেশী, স্বামীর সাপোর্ট পাওয়াটা সবচেয়ে বেশী জরুরি। ফলে বেশীরভাগ মহিলাই এই সময় ভাবেন, স্বামী তাকে ভালোবাসে না। যার দরুন আপনার খিটখিটে মেজাজ তৈরী হয়। মানসিক অবসাদে ভোগেন। ফলে রাতে ঘুমোনোর সময় স্বামীর অন্য কারোর সাথে এফেয়ারস্ জাতীয় নানা স্বপ্ন দেখেন। ফলে এইসময় স্বামীর উচিত স্ত্রীর পাশে থাকা।

যাই হোক, এই সময়ের স্বপ্ন গুলি নিয়ে বেশি বিচলিত হয়ে পড়বেন না। বরং খেয়াল রাখুন নিজের স্বাস্থ্যের ওপর। তবেই আপনার সন্তান সুস্থ থাকবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।