সাইকোলজি এবং অল্টারনেটিভ হিলিংয়ের মাধ্যমে মনকে করে তুলুন সুস্থ্য ও সুন্দর (Make the mind healthy and beautiful through psychology and alternative healing )

সুস্থ্য ও সুন্দর মনের দিশা দেখাবেন স্বনামধন্য সাইকোলজিস্ট নিরাজনা ঘোষ , Spark.Live এ সেশনের মাধ্যমে আপনারাও এবার থেকে নিজেদের মনের চাহিদা পূরণ করতে পারবেন সহজেই।

বছরের নানাসময়ে আমাদের শরীরে যেমন নানা সংক্রমণের প্রকোপ বেড়ে যায়, তেমনি বিভিন্ন সময়ে মানসিক অবসাদের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও থাকে মানুষের। কিন্তু ঠিক কি কি কারণে মানসিক অবসাদের মতো সমস্যার প্রকোপ বাড়ে তা আমাদের সকলের বোধগম্য হয় কি ? বেশ কিছু স্টাডি অনুসারে বছরের কিছু বিশেষ সময়ে যেমন বর্ষাকালে নানা কারণে মেলাটোনিন এবং সেরোটোনিন নামক দুটি হরমোনের ক্ষরণও ঠিক মতো হয় না, যার প্রভাবে ডিপ্রেশনের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কা থাকে। তবে বর্তমানে আরেকটা বড় কারণ হল – কোরোনার প্রকোপে লকডাউন বেড়েই চলেছে এবং আমরা সকলেই গৃহবন্দী রয়েছি দিনের পর দিন এই পরিস্থিতির জন্য অবসাদ অনেকসময় আঁকড়ে ধরছে আমাদের । ফলে সারাক্ষণ বাড়িতে থাকার কারণে স্বাভাবিকভাবেই অবসাদ আমাদের ঘাড়ে চেপে বসে রয়েছে । সঙ্গে লেজুড় হয় ক্লান্তি এবং খিদে কমে যাওয়ার মতো সমস্যাও।

মনকে ভালো রাখার জন্যে আমরা অনেক সময় মেডিটেশন করি, নিয়মিত মিনিটকুড়ি প্রাণায়ম করলে বেশ কিছু পজিটিভ পরিবর্তন হতে শুরু করে, যে কারণে ‘ফিল গুড’ হরমনের ক্ষরণ বেড়ে যায়, যার প্রভাবে মানসিক অবসাদের প্রকোপ কমতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে মনোযোগ ক্ষমতার যেমন বিকাশ ঘটে, তেমনই স্মৃতিশক্তির উন্নতি ঘটে চোখে পড়ার মতো। দূর হয়ে যায় আমাদের ক্লান্তিও।

আবার কখনো পছন্দের সিনেমা দেখলেও মনখারাপ এক নিমেষে দূর হয়ে যায়।
রান্না করার মধ্যেও কিন্তু লুকিয়ে থাকে মন খারাপ দূর করার ম্যাজিক, আজকাল ইউটিউব চ্যানেল খুলে নানা ধরণের রান্না শিখে নিজের মতো করে সেগুলো বানানো যায় এভাবেও ডিপ্রেশন দূর করা সম্ভব হয়।
মনের মতো মানুষের সঙ্গে ঘন্টার পর ঘন্টা আড্ডা গল্প এগুলো আমাদের মনে জমে থাকা কালো মেঘকে সরিয়ে মনের মধ্যে উজ্জ্বল আলো তৈরী করতে সক্ষম হয়।

নিরাজনা ঘোষ

কিন্তু এত সব উপায় থাকলেও এমন কিছু সময় জীবনে আসে যে মুহূর্তগুলোয় প্রচুর অপশন থাকলেও নিজেকে নিজে আর ভালো রাখা যায়না, প্রয়োজন হয় এমন একজন মানুষের যিনি পাশে থেকে না বলা কথা গুলো বুঝে ফেলতে পারবেন এবং চটজলদি কোনো রাস্তা ঠিক বার করে দিতে পারবে যেখানে আর মনের কষ্ট আঁকড়ে ধরবেনা।

এই সময় প্রয়োজন হয় মনোবিদের , তারা তাদের অভিজ্ঞতা দিয়ে আমাদের ডিপ্রেশন , স্ট্রেস, মন খারাপ ইত্যাদির সুরাহা বার করে ফেলেন নিমেষেই। নিরাজনা ঘোষ এমন একজন মনোবিদ ও অল্টারনেটিভ হিলিং থেরাপিস্ট যিনি তার সাহায্যের হাত সর্বদা বাড়িয়ে রেখেছেন, বহু মানুষ তার কাছে গিয়ে মনের বোঝা হালকা করতে পেরেছেন।
কাউন্সিলিং এবং প্রাণিক হিলিং এর মেলবন্ধনে উনি এমন এক অজানা পথের দিশা দেখান , যেখানে মানুষ এক সুস্থ সুন্দর মনের সঙ্গে জীবন কাটাতে সক্ষম হন।

কাউন্সিলিং এবং প্রাণিক হিলিং ( প্রাণা – প্রাণশক্তি এবং হিলিং-সুস্থ্য হয়ে ওঠা ) – এর দ্বারা কিভাবে নিজেদের জীবনের নানান ওঠা পড়া যেমন ডিপ্রেশন, স্ট্রেস, পারিবারিক অশান্তি ইত্যাদির মতো সমস্যার সুরাহা করে নেওয়া যায় সেই খোঁজ দিতে আমাদের সঙ্গে রয়েছেন নিরাজানা ঘোষ।

নিরাজনা ঘোষ

নিরাজনা ঘোষ কলকাতার একজন প্রখ্যাত মনোবিদ (ক্লিনিকাল সাইকোলজিস্ট), লাইফ কোচ , শিক্ষক যার প্রধান ভালোবাসার জায়গা হল রিসার্চ , কাউন্সিলিং , অল্টারনেটিভ হিলিং যেমন- প্রাণিক হিলিং। বহু বছর ধরে তিনি রিসার্চ , কাউন্সেলিং এবং সমাজ সেবামূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন । প্রাণিক হিলিং, মেডিটেশন, প্রাণায়াম , সাইকোলজি ও আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এগুলির ব্যবহার নিয়ে ইনি কাজ করছেন বিগদ ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে। আধ্যাত্মিকতা , সাইন্টিফিক রিসার্চ , কাউন্সিলিং তার ভালোলাগার জায়গা। তাকে চিরকাল এই বিষয়গুলি ভীষণ ভাবে আকর্ষণ করেছে এবং নিরাজনা এগুলির সাহায্যে মানুষকে আনন্দে শান্তিতে বেঁচে থাকলে সাহায্য করে চলেছেন, যার ফলে বহু মানুষেরা তাদের জীবনকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তুলতে পেরেছেন ।

Spark.Live এ সেশনের মাধ্যমে এবার থেকে আপনারা সকলেই নিজেদের যাবতীয় মনের সমস্যার সমাধান পাবেন নিরাজনা ঘোষের কাছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।