বিয়ের শেষ মুহূর্তের কাজ গুলি করেছেন তো ? (Last Minute wedding planning tips you can`t forget)

  • by

এখন আর কেউ শুধুমাত্র বাবা মার কাঁধেই বিয়ের দায়িত্ব ছেড়ে দেয়না , এখন কম বেশি সব মেয়েরাই তো চাকরি করেন, তারা সাবলম্বী তাই অন্যের উপর ভরসা করবেনই বা কেন? শপিং থেকে কেটারিং , ফটোগ্রাফার থেকে ডেকোরেটার্স সবই এখন দিব্বি সামলে ফেলছেন মেয়েরা। কিন্তু এত তোড়জোড় করে সব করলেন, শেষ মুহূর্তে যেন কোনো সমস্যায় পড়তে না হয় তার দিকে নজর দেওয়া খুবই জরুরি। তাই বিয়ের আগে এই বিষয়গুলি নজর দিতে ভুলবেননা।

১।যাদের যা টাকা দেওয়ার তা আগেই ক্লিয়ার করে দিন –

বিয়ের আগে থাকতেই ভেন্ডরদের সঙ্গে এই নিয়ে আলোচনা সেরে নেবেন, তারা যদি বিয়ের দিন পুরো টাকা নিতে চাই তাহলে বিয়ের আগের রাতেই প্রয়োজন মতো টাকাগুলো গুছিয়ে রাখুন , বিয়ের দিন সকালেই সব টাকা মিটিয়ে ফেলুন। তাতে অনুষ্ঠান শেষে ক্লান্ত শরীরে আপনাকে আর এদিকওদিক ছুটতে হবেনা। কিন্তু টাকা দেওয়ার সময় অবশ্যই কোথাও সই করিয়ে নেবেন।

২।লাগেজ গুছিয়ে নেওয়া জরুরি-

যদি ভাড়া বাড়িতে বিয়ে হয়, তাহলে আগে থাকতেই বিয়ের বেনারসি, গয়না, মেকআপ , জুতো এবং অবশ্যই বরের ধুতি পাঞ্জাবি একটা স্যুটকেস এ গুছিয়ে রাখবেন ,বিয়ের দিন বরের আশীর্বাদ হলে সেই গয়না টাও আগে গুছিয়ে ব্যাগ এ ভোরে রাখবেন। শেষ মুহূর্তে ওই প্রয়োজনীয় জিনিসটা খুঁজে না পাওয়া গেলে খুব বিপদ এ পড়তে হতে পারে। বিয়ের পরদিনই শশুড়বাড়ি চলে যেতে হয় মেয়েদের তাই প্রয়োজনীয় জিনিস গুলো ব্যাগ এ গুছিয়ে নিন যেগুলো নতুন জায়গায় গেলেই কাজে লাগবে।

৩।যাদের উপর দায়িত্ব দিয়েছেন তাদের সঙ্গে কথা বলে নিন-

বিয়ের আগের দিন কেটারার,ডেকোরেটর্স এবং ফটোগ্রাফার বা যে যে লোককে আপনি নিজে ঠিক করেছেন, তাদের সঙ্গে শেষ মুহূর্তের আলোচনা সেরে নেওয়াটা খুবই জরুরি , আপনি যেভাবে বলেছেন ঠিক সেই ভাবে কাজ এগোচ্ছে কিনা বুঝে নিন, কারণ বিয়ের দিন আপনি ওসব কোনো দিকেই আর নজর দিতে পারবেননা। ওই দিনটা খুব স্পেশাল তাই কাজ কম্মো আগে থেকে সেরে রিলাক্স থাকুন।

ব্যাস সব চিন্তার অবসান হলো তো। এখন আধুনিকতার যুগে কোনোকিছুই চোখের নিমেষে সমাধান হয়ে যাওয়া কিন্তু কোনোভাবেই কোনো অসম্ভব ব্যাপার নয়। তাই আগে থাকতেই সব ঝামেলা মিটিয়ে একদম রিলাক্স থাকুন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।