পিয়ারসিং করুন ইনফেকশন ছাড়াই ! (Home remedies of piercing infections)

  • by

পিয়ারসিং করা কিন্তু মেয়েদের বেশ একটা স্টাইল স্টেটমেন্ট এর মধ্যেই পড়ে ,ভালো পার্লার থেকে সুঁচ ভালো করে স্টেরিলাইস করিয়ে নাক বা কান ফোটালে ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা খুব কম থাকে ,তবে যদি আপনার কপাল খারাপ হয় তাহলে নাক বা কান ফোটাতে গিয়ে জীবাণু সংক্রমণ হয়ে যেতেই পারে, তখন নানান ওষুধ খাওয়া ডাক্তার দেখানোর ঝামেলা শুরু হয়। কিন্তু বাড়িতে কিছু নিয়ম মেনে চললে এসব ইনফেকশন এর হাত থেকে রেহাই মিলবে, আসুন জেনে নেওয়া যাক –

১) নারকেল তেল –

নারকেল তেলের মধ্যে থাকে মধমবর্গিও ফ্যাটি অ্যাসিড যা জীবাণু নাশ করতে কাজে লাগে, শুধু ইনফেকশন দূর করতেই নয় , জীবাণু সংক্রমের জন্য যদি ব্যাথা হয় সেক্ষেত্রেও নারকেল তেল খুবই উপকারী ভূমিকা নিয়ে থাকে। যতটা প্রয়োজন ততটা নারকেল তেল আঙ্গুল এ নিয়ে যেখানে জীবাণু সংক্রমণ হয়েছে সেখানে লাগিয়ে নিন, মাসাজ করার দরকার নেই। দিনে ৪-৫বার করুন ভালো ফল পাবেন।

২) হলুদ –

হলুদ যে খুব ভালো এন্টিসেপটিক তা আমরা সকলেই জানি, কেটে ছোড়ে গেলে হলুদ এর প্রলেপ লাগানো হয়, আপনাদের যদি পিয়ারসিং করার ফলে ইনফেকশন হয় , তাহলে সামান্য হলুদ বেটে নিয়ে যেখানে ইনফেকশন হয়েছে সেখানে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে উষ্ণ জলে কাপড় ভিজিয়ে মুছে নিন। চাইলে হলুদ এর সঙ্গে নিমপাতাও বেটে লাগাতে পারেন খুব ভালো ভাবে শুকিয়ে যাবে।

৩) ঊষ্ণ নুন জল –

এক কাপ ঊষ্ণ জলে এক চা চামচ নুন মিশিয়ে নিন, তারপর পরিষ্কার তুলো দিয়ে পিয়ারসিং করার ফলে যেখানে জীবাণু সংক্রমণ হয়েছে, সেখানে লাগিয়ে নিন। সারাদিনে বেশ অনেকবার করেই সেঁক দিন , নুনের মধ্যে এন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান রয়েছে , যা খুব তাড়াতাড়ি ইনফেকশন দূর করতে সাহায্য করে।

সুতরাং পিয়ারসিং করে স্টাইল করুন শুধু কিছু ঘরোয়া টোটকা মাথায় রেখে। আর ভয় নেই, এখন নিশ্চিন্তে করতে পারেন পিয়ারসিং।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।