আপনাদের জন্য রইলো টিচার্স ডে সম্পর্কে কিছু বিশেষ তথ্য(Here is some special information about Teacher’s Day)

  • by

ভারতবর্ষে ৫ সেপ্টেম্বর পালিত হয় টিচার্স ডে। ক্যালেন্ডারে লাল দাগ না থাকলেও আমাদের মনে দাগ কেটে গেছে এই দিনটা শৈশব থেকেই। শিক্ষক শব্দের মানে বোঝার অনেক আগে থেকেই রঙিন কাগজ, রং পেনসিল দিয়ে ছবি এঁকে দিনটা আমরা উজ্জাপন করেছি। ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জন্মদিন উপলক্ষে এই দিনটাকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া হয়েছে।

দেশের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি ও দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ। শিক্ষাবিদ ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ ছিলেন দক্ষ কূটনৈতিক, জ্ঞানী পণ্ডিত। এই এত পরিচয়ের পরেও অসম্পূর্ণ থেকে যায় তাঁর পরিচয়। এই সব পরিচয় বাদ দিয়েও শেষ পর্যন্ত যে কারণে মনে রাখা যায় তাঁকে, তা হলো শিক্ষক ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ।

শিক্ষক ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণনের জন্মদিন

তাঁর জন্মদিনটা শিক্ষক দিবস হিসেবে পালন করার শুরুটা কীভাবে তা জানেন? একদল ছাত্রছাত্রী মেতে উঠেছিল তাঁদের শিক্ষকের জন্মদিন উদযাপনে। শিক্ষক নিজেই আর্জি জানালেন, “শুধু আমার জন্মদিন হিসেবে উদযাপন না করে দিনটা যদি সব শিক্ষকের দিন হিসেবে পালন করো, খুব খুশি হব”। তারপর থেকেই শিক্ষকদের মনে রেখে একটা দিন উৎসর্গ করা হল তাঁদের জন্য সেটা ১৯৬৭ সাল।

Spark.Live এ রয়েছেন নিউট্রিশন শিক্ষিকা দীপান্বিতা সাহাhttps://spark.live/consult/online-class-to-learn-nutrition-science-with-teacher-dipanwita-saha-bangla

শিক্ষক দিবসের তাৎপর্য

নিজের জন্মদিন নিয়ে পণ্ডিতসুলভ ঔদাসীন্য ছিল রাধাকৃষ্ণণের। অত্যন্ত প্রিয় কিছু ছাত্রছাত্রী তাঁর জন্মদিনটিকে মনে রাখার মতো করে তুলতে চাইলে তিনি বলেন, শুধু তাঁর জন্য নয়, দিনটা উদযাপন হোক দেশের সমস্ত শিক্ষককে মনে রেখে

১৮৮৮ সালের এই দিনটায় তিরুতানি শহরের মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের। বাবা চেয়েছিলেন ছেলে ধর্মের কাজে মন দিক। কিন্তু ছেলে মন দিলেন দর্শনে। তিরুপতিতে স্কুলের গণ্ডী পেরিয়ে মাদ্রাজের খ্রিষ্টান কলেজে দর্শন নিয়ে পড়াশোনা। কর্মজীবনের প্রথম দিকে মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি কলেজে অধ্যাপনা করার সময় শিক্ষক হিসেবে ছাত্রদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। বয়স তিরিশের কোঠায় যাওয়ার আগেই সুযোগ এল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার। ১৯৩১ থেকে ১৯৩৬ এই সময়ের মধ্যে তিনি অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। ১৯৩৯ এ বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয় তাঁকে। ১৯৫২ তে দেশের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি এবং ১৯৬২ থেকে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য রাষ্ট্রপতির আসনে তাঁকে পেয়েছে দেশবাসী।

Spark.Live এ রয়েছেন বেশ কিছু বিশিষ্ট শিক্ষক শিক্ষিকা

বর্তমান প্রজন্মের কাছেও ৫ই সেপ্টেম্বর দিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষত ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা সুন্দরভাবে সেজেগুজে তাদের শিক্ষক শিক্ষিকার জন্য নানারকম অনুষ্ঠান করে তাদের ভালোবাসা ও সম্মানে ভরিয়ে তোলেন। কিন্তু এই বছরটা বেশ খানিকটা হলেও আলাদা রকম ভাবে সকলেই এই দিনটি উজ্জাপন করবেন, করোনা পরিস্থিতিতে স্কুল কলেজ সবই এখন বন্ধ। বর্তমানে অনলাইন প্লাটফর্মকেই আমরা বেছে নিয়েছি নিজেদের পড়াশুনো থেকে শুরু করে বিনোদন সব ক্ষেত্রেই। Spark.Live এ রয়েছেন বিশেষ কিছু শিক্ষক শিক্ষিকারা যাদের সঙ্গে বাড়িতে বসেই অনলাইন সেশন করে আপনারা নিজেদেরকে সুন্দরভাবে তৈরী করে তুলতে পারবেন।

Spark.Live এ রয়েছেন আঁকার শিক্ষিকা পল্লবী চক্রবর্তীhttps://spark.live/consult/online-drawing-class-for-children-with-pallabi-chakraborty-bangla

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।