কামরাঙা স্বাদে ও গুণে অনবদ্য ! (For avoiding skin problem, add star fruit in your diet)

  • by

যারা টক খেতে ভালোবাসেন তারা কামরাঙা নাম শুনলেই লোভ সামলাতে পারেননা, এটি মূলত গ্রীস্মকালীন ফল , তবে আজকালকার দিনে সব ফলই প্রায় সারা বছর পাওয়া যায় , সব থেকে মজার বিষয়টা হলো কামরাঙা যেমন দর্শনধারী তেমনি গুণবিচারিও। চলুন দেখেনি কামরাঙার কি কি উপকারিতা আছে –

কামরাঙ্গা কিন্তু বলা যেতে পারে একটা গোটা ওষুধ এর দোকান , শরীরে অনেক সমস্যা নিরাময়ে এর বিকল্প নেই । জ্বর ,সর্দি, কাশি , আলসার এবং গলায় বেথায় ও খুব উপকারী। শুধু তাই নয় ডায়বেটিস এরজন্য ওষুধ এর মতো কাজ করে। হজমের সমস্যা ও দূর করে।

কামরাঙা এক্সিমা ও সরিয়ে থাকে। এক একটি মাঝারি মাপের কামরাঙায় ক্যালোরি মাত্র ৩০%. এতে কার্বোহাইড্ৰেট এর পরিমান মাত্র ৯.৫গ্রাম , ডায়াটারি ফাইবার রয়েছে ২.৫ গ্রাম। এটি শরীরে ৩% কার্বোহাইড্রেট এর চাহিদা পূরণ করে, পাশাপাশি এটি আন্টি অক্সিডেন্ট পূর্ণ,যা শরীরকে ভেতর থেকে ফিট রাখতে সহায়তা করে।

এতে রয়েছে ভিটামিন এ , বি এবং সি ,যা শরীরে ভিটামিন এর চাহিদা পূরণ করে আর মেটাবলিসম ও বাড়িয়ে তোলে তাই মোটা হওয়া থেকেও দূরে থাকা যাই।

কামরাঙায় থাকা কপার আমাদের শরীরের কোলেস্টরোল কমাতে সাহায্য করে থাকে, এই ফল শরীরের খারাপ কোলেস্টরোল এর মাত্রা কমিয়ে ভালো কোলেস্টরল এর মাত্রা বৃদ্ধি করে।

ম্যাগনেশিয়াম এ ভরপুর হয় এই কামরাঙ্গা ফলটি।

চুলের জন্যও ভীষণ উপকারী এই ফল, এতে ভিটামিন বি -কমপ্লেক্স থাকার জন্য চুল সুন্দর হয় সহজেই। ঠিক একইভাবে ত্বকের জন্যও খুবই উপকারী, স্কিনের যাবতীয় ব্রণ সারিয়ে তোলে।

কামরাঙ্গা আবার সকলের জন্য উপকারী নাও হতে পারে সমীক্ষা বলছে- কামরাঙ্গা খুব বেশি খেলে কিডনির সমস্যা দেখা যায় , তাই কামরাঙ্গা খান কিন্তু একটুঁ পরিমান বুঝে তাহলেই শরীরে খুব ভালো কাজে লাগবে। কামরাঙ্গার স্বাস্থ্যগুণে ভরিয়ে তুলুন জীবন .

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।