জানেন কি ভালো থাকার জন্যে ফিট থাকা খুবই জরুরি(Do you know that being fit is very important for staying well)

আমাদের মন এবং শরীর একে অপরের পরিপূরক, একটি সুস্থ না থাকলে অপরটিও অসুস্থতার লক্ষণ। আমরা সকলেই জানি ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কখনোই ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়। কিন্তু আপনি নিজে থেকেও এই সমস্যার মোকাবিলা করতে পারেন। নিজেকে সুস্থ রাখতে হলে দুই দিকে খেয়াল রাখতে হবে সেই জন্য এমন কিছু খাবার খাবেন যা শরীরের পক্ষে ভাল এবং কিছু ব্যায়াম করতে হবে যা স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকার। চলুন জেনে নেওয়া যাক।

উপযুক্ত ডায়েট অবশ্যক

শরীরের মধ্যে মস্তিষ্ক সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটা অংশ তাই এটিকে উন্নত রাখতে এবং স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করতে টমেটো, গ্রিন টি এবং সামুদ্রিক মাছ ইত্যাদি খাওয়া উচিত। আমাদের মস্তিষ্কের পাশাপাশি হৃদপিণ্ডকেও খুব সুস্থ ও সতেজ রাখতে হয়। যে কারণে নিয়মিত প্রচুর পরিমাণে সবুজ শাকসবজি এবং ফলমূল এছাড়াও আঁশযুক্ত খাবার খাওয়া উচিত। তবে গবেষণায় দেখা গিয়েছে আপেল, ডাল জাতীয় খাবার, ডিমের হলুদ অংশ হৃদপিন্ডের জন্য খুবই উপকারী।

পরিমিত জল খাওয়া জরুরি

কিডনি দেহের ছাঁকনি হিসেবে কাজ করে, তাই আপনি যা খাবেন, তার বর্জ্য অংশগুলি সেখানে গিয়ে জমা পড়ে। সেজন্য কিডনির অপর কোনো রকম চাপ না দিয়ে খুবই সহজপাচ্য খাবারগুলো খাওয়া উচিত যাতে নুন ও সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকে। তাই অতিরিক্ত পরিমাণে জল পান করা উচিত যাতে সেই খারাপ পদার্থ গুলি খুব সহজেই কিডনির মাধ্যমে শরীর থেকে বেরিয়ে যায়।

আরও পড়ুন-জানেন কি নিয়মিত সূর্য নমস্কারের মধ্যে রয়েছে হরেকরকম সুফল? (Do you know that there are various benefits in regular Surya Namaskar)

ডায়েটের সঙ্গে শরীররচর্চা সমান গুরুর্ত্বপূর্ণ

আমরা প্রায়ই পেটের কোন না কোন সমস্যায় ভুগতে থাকি। তবে এটা ভুলে গেলে চলবে না শুধুমাত্র ভালো খাবার খেলেই পেট ভালো থাকবে এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। এর জন্য আপনাকে নিয়মিত শরীরচর্চা করতে হবে। দিনে দুই বেলা হাঁটাচলা করুন এবং সুষম খাদ্য গ্রহণ করুন। তরমুজ, বেদনা, ডুমুর এবং ডিম খাওয়া উচিত। এর ফলে আপনার শরীর এবং মন দুটোই ভাল থাকবে। সবশেষে, আপনার পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমই হল ফিটনেস থাকার সেরা উপায়।

ফিটনেস কোচ সংযুক্তা

সংযুক্তা একজন খাদ্যরসিক বাঙ্গালী বেক্তিত্ব। এমন একটা সময় ছিল খাবার ছাড়া আর কিছুই তার পছন্দের ছিলোনা, আর শরীর চর্চা থেকে শত শত মাইল দূরে থাকতো এই মানুষটি। যদিও স্টেট লেভেলে ব্যাডমিন্টন খেলার অভিজ্ঞতটা ছিল তার, কিন্তু পড়াশুনোয় চাপে তার থেকেও দূরে সরে যেতে হয়েছে। নিজের ক্যারিয়ার তৈরীর পিছনে ছুটতে ছুটতে শরীর চর্চার দিকে বিন্দুমাত্র নজর পড়েনি তার, এভাবে দিনে দিনে অস্বাভাবিক হারে ওজন বাড়তে শুরু করে সংযুক্তার এবং নানারকম অসুখের সূত্রপাত হতে থাকে। এমনকি সংযুক্তার সর্বাধিক ৯৩ কেজি ওজন পর্যন্ত হয়ে গেছিলো।

পছন্দের পোশাক তার গায়ে হতোনা, এবং অল্প বয়সেই রোগাছন্ন হয়ে পড়েছিল সংযুক্তা। কিন্তু এভাবে তো চলা যায়না নিজের মনের জোর একত্র করে সব খারাপ অভ্যেস গুলোকে দূরে সরিয়ে রেখে ২০১৮ সালে নিজেই নিজেকে মোটিভেট করে শরীরচর্চা শুরু করে দিলেন। এভাবেই মাত্র ১১ মাসে ৩০ কেজি ওজন কমিয়ে ফেললেন, যা তার জীবনের হারিয়ে যাওয়া আত্মবিশ্বাসকে ফিরিয়ে এনেছে। যেন তার সম্পূর্ণ নতুন জন্ম হলো, নতুন ভাবে নিজেকে চিনতে পারলেন। সংযুক্তা বহু দিন ধরে তার ইউটিউব চ্যানেল এ নানারকম ভিডিওর মাধ্যমে বহু মানুষকে উপকৃত করে চলেছেন, তার প্রচুর ক্লাইন্টসরা খুব সহজেই নিজেদের পছন্দের চেহারা ফিরে পেয়েছেন এবং হয়ে উঠেছেন সকলের মাঝে অনন্য। শুধুমাত্র মনের জোর এবং নিজের অনুভূতি ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এই টার্গেট তিনি ফুলফিল করেছেন।

Spark.Live এ ফিটনেস কোচ সংযুক্তার সঙ্গে অনলাইন সেশনের জন্যে লিংকটিতে ক্লিক করুন-https://spark.live/consult/fitness-coach-sanjukta-one-on-one-online-fitness-training-in-bangla

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।