সরকারি নির্দেশ মতো সব কিছু বন্ধ রাখলে কতটা মোকাবিলা করা যাবে করোনার বিরুদ্ধে? (Closing all institution in India- how much will help to fight against Corona ?)

ইতিমধ্যেই করোনার সাথে মোকাবিলা করতে কোমর বেঁধে নেমেছে রাজ্য প্রশাসন. সকল বেসরকারি সংস্থাগুলিকে ৩১শে মার্চ অবধি বন্ধ রাখার অনুরোধ করা হয়েছে. আর স্কুল গুলিকে বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ১৫ই এপ্রিল পর্যন্ত.

সেই মতো প্রকোপ এড়াতে, রাজারহাটের বেশ কিছু বেসরকারি সংস্থা বন্ধ রেখে বাড়ি থেকে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছে কর্মীদের. একই চিত্র ভারতের অন্যান্য রাজ্য গুলিতেও. রাস্তাঘাট রীতিমতো শুনশান হয়ে যাচ্ছে দিনে দিনে. বাতিল হয়েছে পরীক্ষা. জমায়েত হতে ব্যারন করা হচ্ছে সকলকে. এতো নিষেধাজ্ঞা কি খুব অতিরিক্ত বলে মনে হচ্ছে, যেখানে অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশে করণে আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কম, আর পশ্চিমবঙ্গ তার মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা যেখানে মাত্র একজন.

না , একেবারেই কোনো বাড়াবাড়ি করছে না প্রশাসন সতর্ক হতে. করোনার মতো মারণদায়ী ভাইরাসকে রুখতে এই ধরণের সতর্কতা রাখাটা ভীষণ মাত্রায় উচিত. আর তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ হল ইতালি. যেখানে প্রথম সপ্তাহে করণে আক্রান্তের সংখ্যাকে পাত্তা না দেওয়ায়, মানে কোনো প্রতিষ্ঠান বন্ধ না করা বা কোনো সতর্কতা না নেওয়ায় মাত্র চার সপ্তাহের মধ্যে সেখানে করণে আক্রান্তদের মৃত্যুমিছিল শুরু হয়ে গিয়েছিল. এই মুহূর্তে ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা 27,৯৮০ জন. মৃত্যু হয়েছে ২১৫৮ জন কিন্তু রিকভার ও করেছেন ২৭০০ এর বেশি আক্রান্তেরা.ইরানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৭২৪। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২০৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন ভারতেও ক্রোনার থার্ড ফ্রেস শুরু হবে আর কিছু সময়ের মধ্যেই. তার আগেই যদি বাড়তি সাবধানতা না নেওয়া হয়, তো ইতালির মতো ভারতেও মৃত্যুমিছিল অব্যাহত থাকবে.

অন্যদিকে কলকাতায় বেলেঘাটা আইডি তে করোনা সন্দেহে ভরতি ১০ জন। আর সারা দেশে মৃতের সংখ্যা যদিও ৩ জন কিন্তু COVID-১৯ করোনা ভাইরাস মিলেছে ১৩৭ জন ভারতীয়দের মধ্যে. তাই অবস্থা সত্যি গুরুতর. এই অবস্থায় যতটা জমায়েত এড়ানো যায় ততটাই মঙ্গল.

তাই প্রশাসনের সকল ধরণের প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে বিনোদন কেন্দ্রগুলিকে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত অনেকটাই ফলপ্রসূ হবে বলে মনে করা হচ্ছে. আপনার কি মনে হয়, এইভাবে কি কিছুটা হলেও এড়ানো যাবে এই মারণ ভাইরাসকে?

Tags:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।