সেনসেটিভ স্কিনের জন্য কোন ক্যামিক্যালগুলি ভুলেও আপনার স্কিন প্রোডাক্টে থাকা চলবে না ? (Chemicals that should not good for sensitive skin )

  • by

সেনসেটিভ স্কিনকে সুস্থ আর উজ্বল রাখা তা যে কতটা ঝক্কির কাজ, সেটি যার আছে, তারাই বোঝে. মরশুম হিসেবে পরিবর্তন হয় স্কিন. এমনকি স্কিনের সমস্যা এতটা মাঝেমধ্যে বেড়ে যায়, যে স্কিনে মেকাপ করাও যায় না. কারণ স্কিনে মেকাপের প্রলেপ পড়লেই, স্কিনের সমস্যাগুলি আরো কিছু গুন্ বেড়ে যায়.

তবে যাদের সেনসেটিভ স্কিন আছে , তাদের কিছু ক্যামিক্যাল পুরোপুরি এভোইড করতে হয়. অন্যথা সেগুলো স্কিনের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক হিসেবে প্রমাণিত হয়. চলুন দেখা যাক, কোন কোন ক্যামিক্যাল কথা বলছি-

অক্সিবেনজোন-

এই ক্যামিক্যালটি বেশিরভাগ সানস্ক্রীমে ব্যবহার করা হয়. কিন্তু এই ক্যামিক্যালটি একেবারেই সেনসেটিভ স্কিন মানুষদের জন্য ভালো নয়. বরং যে সানস্ক্রীমে জিংক অক্সাইড বা টাইটানিয়াম অক্সাইড আছে, সেট আপনাদের স্কিনের জন্য ভালো. সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে এটি স্কিনকে প্রটেক্ট করে.

পারাবেন্স-

এত ক্যামিক্যালটি শুধুমাত্র সেনসেটিভ স্কিন নয়, কোনো স্কিনের জন্যই ভালো না. সবসময়ই নিজেদের স্ক্যান্সারে প্রোডাক্ট বাছার সময় দেখে নেবেন যে অবশ্যই যেন সেটি হয় পারাবেন্স ফ্রি. আর সেনসেটিভ স্কিনে এটির এপলাই বাড়িয়ে তোলে ইর্রিটেশন. স্কিন রীতিমতো জ্বলতে থাকে.

সালফেট-

আরেকটি ক্ষতিকারণ ক্যামিক্যাল আমাদের স্কিনের জন্য. সব ধরণের স্কিনের জন্যই বলছি, তবে সেনসেটিভ স্কিনের ক্ষেত্রে বলবো, এই ক্যামিক্যালটি আরো স্কিনকে শুষ্ক করে তোলে. যার দরুন অনেক এখন বা পিম্পলসের আনাগোনা শুরু হয়. তাই এটিকে এভোইড করুন.

এই ক্যামিক্যালগুলির থেকে স্কিনকে দূরে রাখলেই, আপনার সেনসেটিভ স্কিনেও উজ্বল ভাব লক্ষ্য করতে পারবেন. সমস্যা অনেক কম থাকবে.

তাই বারবার বলবো, আপনি যখন বাজার থেকে কোনো বিউটি প্রোডাক্ট বা স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট কিনছেন, অবশ্যই দেখে নেন তার পরিমান আর দাম. তার সাথেই ভালো করে খুঁটিয়ে দেখে নিন, কি কি উপাদান আছে ওই প্রোডাক্ট এ. আর উপরে উল্লিখিত ক্যামিক্যালগুলি যদি থেকে থাকে, আপনার প্রোডাক্টটিতে, তাহলে নির্দ্বিধায় তাকে ত্যাগ করুন.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।