স্কিনের দাগ ছোপ মেটাতে কার্যকরী কোন ক্রিমগুলি? (Top 4 Skin lightening creams)

  • by

মুখের চারিদিকে ছোট ছোট দানা, সাথে আগের পিম্পলসগুলির কালো কালো ছোপ, এছাড়া পিগমেন্টেশনের চাপও রয়েছে, সব মিলিয়ে এই পলুটেড পরিবেশে নিজের স্কিনকে ঝকঝকে রাখা ভীষণ ঝক্কির বিষয়. প্রতি মাসে একটা বড় সময় আর টাকা পার্লারে খরচ করেও, মুখ পরিষ্কার হচ্ছে না. কিছু না কিছু স্কিন প্রবলেম থেকেই যাচ্ছে. তার ওপর মার্কেটে এতো ক্রিমের ছড়াছড়ি, সত্যি কথা বলতে নিজের স্কিনের জন্য কোনটি ভালো আর কোনটি ভালো নয়, তা বোঝা বড় দায়. আর দোকানদারকে জিজ্ঞাসা করে কেনাটাও একভাবে বৃথা. কারণ তিনি তো নিজের লাভ অনুসারে আপনাকে জিনিস গছাতে চাইবেন. তাই কাজের কাজ কিছুই হয় না. বরং আপনার স্কিনের সমস্যাটি আরো বাড়তে থাকে.
তো চলুন দেখে নেওয়া যাক এই মুহূর্তে বাজারে কোন চারটি ক্রিম বেস্ট স্কিন লাইটেনিংয়ের জন্য?

১. ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট রেডিয়েন্স স্কিন লাইটেনিং/ব্রাইটেনিং ডে ক্রিম

এই ক্রিমটির দুর্দান্ত কাজের জন্য এই মুহূর্তে অনেকের কাছেই পছন্দের. স্কিন মোলায়েম করার সাথে সাথেই, ময়শ্চারাইসও করে ভিতর থেকে. এপ্লাই করা সাথে সাথেই একটা ইন্সটা গ্লো দেয়. সব ধরণের স্কিনের জন্যই ভালো কাজ করে. মুখের কালো ছোপ কমানোর পাশাপাশি, মুখের আসমান টোন ইভেন করে. নিয়মিত ব্যবহারে, ত্বকের সকল সমস্যা কমে তো যায়, এতো সুন্দর একটা গ্লো দেয়, যে সহজে চোখ ফেরানো যায় না.

২. মামাইয়ার্থ স্কিন প্লাম্প ফেস সিরাম আন্টি এজিং ক্রিম ফর গ্লোইং স্কিন

মামাইয়ার্থের সব কয়টি প্রোডাক্ট এর মধ্যে, এই এন্টি এজিং ক্রিমটি এক কোথায় ফাটাফাটি. শুধু ক্রিম ত্বকের পরিচর্যার জন্য পর্যাপ্ত হয় না. কারণ, এতো পলুশনে স্কিনের আরো বেশি পরিচর্চা, যত্ন দরকার হয়. সেই ক্ষেত্রে সিরাম ভীষণ দরকারি. কারণ স্কিনকে ভিতর থেকে উজ্বল করে তুলতে, বিশেষ করে ডাল স্কিনকে ভিতর থেকে পরিষ্কার করে তুলতে পারে একমাত্র সিরাম.
এই সিরামটি স্কিনকে হাইড্রেট করে, বলিরেখা দূর করে, আর পুরোপুরি প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরী হওয়ায়, স্কিনে কোনো সাইড ইফেক্ট ফেলে না.

৩. লোটাস হের্বালস ফিতো আরেকস ডিপ ময়শ্চারাইসিং ক্রিম

এই ক্রিমটি ভিতর থেকে স্কিনকে ময়শ্চারাইস করে, তাই স্বভাবতই স্কিন খুব উজ্জ্বল হয়ে ওঠে. সব ধরণের স্কিনের জন্যই ভীষণ ভালো ক্রিমটি. মুখের জন্য তো ভালোই, সাথে ঘাড়ে আর হাতেও এপ্লাই করলেও কুনুই বা হাতের যেকোনো ছোপ দাগ মিটে যায়. এক ম্যাশ প্রতিদিন রাতে শোয়ার আগে, মুখ ভালো করে ধুয়ে ব্যবহার করলেই, স্কিনের সমস্যা কমতে দেখা যায়.

৪. রিকুইল স্কিন রেডিয়েন্স ক্রিম

রিকুয়েলের এই ক্রিমটি হ্যাপেরপিগমেন্টেশন, ডার্ক স্পট কমাতে ভীষণভাবে ফলদায়ী. ডার্মাটোলজিক্যালি টেস্টেড হওয়ায়, সব স্কিনের জনই ভালো. ভিতর থেকে স্কিনের কোষগুলির রিগ্র্যথ করিয়ে, স্কিনকে করে তোলে উজ্জ্বল আর স্পটলেস. আগের থেকে অনেক বেশি উজ্বল দেখায়.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।