বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য স্পেশাল থিমটি কি হতে পারে? (Best Five trending wedding theme)

  • by

বিয়ের মরশুম উপস্থিত. এখনো সেইভাবে ঠান্ডাটা পড়েনি ঠিকই, তবে হালকা একটা ঠান্ডার আমেজ কিন্তু আছে. আর এই মরসুমেই বিয়ে বাড়ি উপভোগের মজাটাই থাকে অন্যরকমের. এখন আগেকার দিনের মতো গতানুগতিক সাজে প্যান্ডেল সাজিয়ে বিয়ের রীতি দেখা যায় না. বরং সেই জায়গায়, নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য, বিয়ের অনুষ্ঠান এখন অনেকটাই থিমমুখী. আর তাতে ঝক্কিও কম. কারণ পুরো দায়িত্বটাই থাকে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট দের হাতে. নিজেদের কাঁধে খুব বেশি দায়িত্ব থাকে না.

আজ দেখবো বাংলা তথা ভারতে কি কি থিমের চাহিদা বেশি এইবারে-

১. ফেইরিটেল ওয়েডিং থিম-

এই থিমটিতে পুরোপ্যান্ডেলটি সাজানো হয় মূলত সাদা ফ্যাব্রিক দিয়ে, তার সাথে থাকে সাদা বাহারি ফুল, তবে সাদা ফ্যাব্রিকের জায়গায়, লাইট কালারের যে কোনো ফ্যাব্রিকও ব্যবহার করা যায়.
কনে এবং বরের পোশাক থাকে ছিমছাম মানে হালকা কালারের আউটফিট, ঠিক যেমনটা আমরা দেখেছিলাম, অনুষ্কা- বিরাট কোহলির বিয়েতে.

২. রয়াল বা রাজকীয়-

রয়াল বললেই আমাদের চোখে ভেসে ওঠে, রাজস্থানি বা লখনৌ দের আভিজাত্যের কথা. রাজপূত বা পাঞ্জাবিদের বেশির ভাগ বিয়ের অনুষ্ঠান, রয়েল থিমের আড়ম্বরে হলেও, এখন অনেক বাঙালিরাও কিন্তু এই থিমের দিকেই ঝুঁকছেন.
এই ধরণের বিয়ে হতে পারে, কোনো রাজ্ বাড়ি বা জমিদার বাড়ি, বা বিনোদনমূলক কোনো কৃত্রিম রাজবাড়িতে. এই ক্ষেত্রে কিন্তু ব্রাইট কোলোরের ব্যবহার করতেই হয়. ভাবি বধূর সাজ থাকে লাল, বা নয় কোনো গাঢ় রঙের লেহেঙ্গা বা শাড়িতে. আর বরের সাজ কিন্তু কোনো রাজার থেকে কম থাকে না. আলোর ডেকোরেশন এই থিমের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট.

৩. বিচ সাইড –

যারা ডেস্টিনেশন ম্যারেজ করার কথা ভাবছেন তাদের জন্য এটা দারুন থিম. সমুদ্র পারে বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য গোয়া তো সবসময় হিট. তবে এখন মন্দারমণি বা তেজপুরেও কিন্তু বিচ সাইড থিম ম্যারেজ হচ্ছে. এতে খরচ ভীষণ কম. কিন্তু মজা ততটাই বেশি.
বিচ সাইডে চারদিক খোলা ছোট্ট একটি প্যান্ডেল বানিয়ে সামনে বসার জায়গা করা. আর খাওয়ার জন্য থাকে বুফে. কিছুটা জায়গা হাফ খোলা হাফ ঢাকা রেখে ঘিরে নিয়ে অনায়াসেই এই থিমের মজা নেওয়া যায়.

৪. ইনডোর গার্ডেন-

কোনো উন্মুক্ত জায়গায়, বিশেষ করে কোনো রিসোর্টের বাগানে, যেখানে পুরো জায়গাটি গাছপালায় ঘেরা, সেই জায়গায় এই থিমের বিয়ে খুব প্রচলিত. কোনো ফুলের বাগান, যেখানে চড়ুইভাতির জন্য যান মানুষরা, সেরকম জায়গায়, ছোট ছোট প্যান্ডেল করে, বিয়ের অনুষ্ঠান করা হয়. কিন্তু সবটাই থাকে উন্মুক্ত. আর এই ক্ষেত্রে কিন্তু মাল্টি কালার ফ্যাব্রিক ব্যবহার করা হয়.
কলকাতার ইকো পার্কের একান্তে রিসোর্টটির বাগানেও কিন্তু এই থিমের বিয়ে প্রায়ই চোখে পড়ে.

৫. গ্রাম বাংলা –

এই থিমটি কিন্তু বেশ কয়েকবার চোখে পড়েছে অনেকেরই. বিশেষ করে যাদের গ্রাম বাংলার সংস্কৃতি বিশেষ পছন্দের, তাদের জন্য এই থিমটি চয়েস করার প্রবণতা বেশি থাকে. একটি খোলা মাঠে, ছোট্ট ছোট্ট মাটির প্রলেপ দেওয়া ত্রিপল আর বস্তা দিয়ে স্টল বানানো হয়. এমনকি বিয়ের জায়গাটিও পুরোপুরি গ্রামের অনুষ্ঠানের অনুকরণে, সাজানো হয়.

তো আর দেরি না করে, নিজের বিয়ের জন্য এর মধ্যে থেকে বেছে নিন, আপনার পছন্দের থিমটি. যাতে, আমাদের জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ দিনকে করে তুলতে পারেন সকলের কাছে স্মরণীয়.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।