৩০ টি বিখ্যাত বাংলা প্রেমের কবিতা

  • by

প্রেমে পড়লে সবাই কবি. প্রেম করলেই যেন কবি কবি ভাব বেড়ে যায় আমাদের মধ্যে. কিন্তু যাদের কবি কবি ভাব কিন্তু ছন্দের অভাব? তারা কি করবে? তারা কি তাদের প্রেমিক-প্রেমিকাকে কবিতা লিখে পাঠাবে না? মোটেই না. প্রেমে যারা হাবুডুবু খাচ্ছো তাদের জন্য রইল তিরিশ খানা বিখ্যাত বাংলা প্রেমের কবিতা. প্রেমিক বা প্রেমিকাকে এই সব কবিতা লিখে পাঠালে সে খুশি হবেই হবে. 

১. শুধু তুমি আছো তাই, আমি কথা খুঁজে পাই,
দূর হতে আমি তাই, তোমায় দেখে যাই
তুমি একটু হাসো তাই, আমি চাঁদের মিষ্টি আলো পাই !

২. হাজার তারা চাইনা আমি, একটা চাঁদ চাই,
হাজার ফুল চাইনা আমি একটা গোলাপ চাই.
হাজার জনম চাইনা আমি একটা জনম চাই,
সেই জনমে যেন শুধু তোমায় আমি পাই !

৩. তুমি আমার রঙিন স্বপ্ন, শিল্পীর রঙে ছবি,
তুমি আমার চাঁদের আলো, সকাল বেলার রবি,
তুমি আমার নদীর মাঝে একটি মাত্র কুল,
তুমি আমার ভালোবাসার শিউলি বকুল ফুল !

৪. দিন যায় দিন আসে, সময়ের স্রোতে ভেসে,
কেউ কাঁদে কেউ হাসে, তাতে কি যায় আসে,
খুঁজে দেখো আসে পাশে,
কেউ তোমায় তার জীবনের চেয়ে বেশি ভালোবাসে !

৫. দুঃখ আছে মনে মনে,
বলবো আমি কার সনে,
শোনার মতো মানুষ নাই,
তাই নিজের কষ্ট নিজেই পাই,
যেদিন পাবো তার দেখা,
বলবো আমার মনের সব কথা !!!

৬. আমি হলাম আকাশ, কষ্ট আমার মেঘ,
জোস্না আমার আবেগ, বৃষ্টি আমার কান্না,
রোদ আমার হাসি, কি করলে বুঝবে-
বন্ধু তোমায় আমি কত ভালোবাসি !

৭. তুমি বৃস্টি ভেজা পায়ে সামনে এলে মনে হয়-
আকাশের বুকে যেন জল ছবি এঁকে যায় .
তুমি হাসলে বুঝি মনে হয়,
স্বপ্ন আকাশে পাখি ডানা মেলে দেয় !!!

৮. তোমার জন্য মেঘ গুলো ভেসে যাচ্ছে আকাশে,
তোমার জন্য স্বপ্নঘুড়ি উড়ছে ভেসে বাতাসে,
তোমার জন্য আছে আমার বুক ভরা ভালোবাসা,
এই কথা জানে শুধু আমার বিধাতা !!

৯. আজ ছন্দ মহলে মিলছে দুটি মন,
মনে মনে বলবে ওরা কথা যে সারাক্ষন,
কথার মাঝে থাকবে গভীর ভালোবাসা,
ভালোবাসার মাঝে থাকবে দুটি মনের বেকুলতা !!

১০. আমি ভালবাসি সখা তুমার নয়নের ওই কাজল
 তোমারে না দেখিতে পাইলে হয়ে যাই আমি ব্যাকুল।
 পৃথীবির যত সুখ আছে তুমারো কাছে,
 দিও সখি সবটুকু উজাড় ও করে.

১১.আমাকে ভালবাসতে হবে না,
ভালবাসি বলতে হবে না.
মাঝে মাঝে গভীর আবেগ
নিয়ে আমার ঠোঁট
দুটো ছুয়ে দিতে হবে না.
কিংবা আমার জন্য রাত
জাগা পাখিও
হতে হবে না.
অন্য সবার মত আমার
সাথে রুটিন মেনে দেখা
করতে হবে না. কিংবা বিকেল বেলায় ফুচকাও
খেতে হবে না. এত
অসীম সংখ্যক “না”এর ভিড়ে
শুধু মাত্র একটা কাজ
করতে হবে আমি যখন
প্রতিদিন এক বার “ভালবাসি” বলব
তুমি প্রতিবার
একটা দীর্ঘশ্বাস
ফেলে একটু
খানি আদর মাখা
গলায় বলবে “পাগলি”

১২.বলতে পারো?
কোন মেঘেতে ‘বৃষ্টি’ হাসে
কোন মেঘেতে সূর্য,
কোন মেঘেতে ‘ঝিরি হাওয়া’
কোন মেঘেতে বজ্র।
কোন গগনে তারার মেলা ‘শুকতারা’ ‘অরূন্ধতী’,
কোন আকাশে ‘পূর্ণিমা’ চাঁদ নিশীথ প্রদীপ বাতি।
কোন হাওয়াতে ভেসে বেড়ায় মিষ্টি-মধুর শব্দ,
কোন দিঘীটার শীতল জলে ফোটে আমার ‘পদ্ম’।
কোন বাগিচায় নীল ভোমরা গুন গুন গান গায়,
কোন বাতাসে জংলী ফুলের সুবাস

১৩. কি পেয়েছি আর কি হারিয়েছি
হয় নি হিসাব করা,
এরি মাঝে নতুন বছর
দিচ্ছে আবার তাড়া।
দিনগুলো যে কেমন করে
কেটে যাচ্ছে সারা,
সময়টুকু পাই না হাতে
একটু পেছন ফিরা।
যদি করি এমনি ভাবে
সময় হাতছাড়া,
সফলতা আসবে কিসে
স্বপ্ন গুলোই ঘুমপাড়া।

১৪. অজস্র স্বপ্নের ভিড়ে তোমায় দেখি, সমস্ত কল্পনা জুড়ে তোমার বসবাস,
অজস্র কাব্য শুধু তোমায় নিয়ে লিখা, অপুরন্ত বন্ধুত্ব নিয়ে তোমার অপেক্ষায় থাকা

১৫.অনেক পার্থনা করে পেয়েছি তোমায়, অনেক যত্ন করে রেখেছি তোমায়,
তোমাকে ভুলার কথা ভাবতেই পারি না, কারন ভাগ্যের রেখা থেকে ছিনিয়ে এনেছি তোমায়।

১৬.অন্য কারো সুখের কারন হয়ে আপনি যে সুখের অনুভুতি পান,
সেটিকেই সবচেয়ে বড় সুখ বলা হয় ।

১৭. অনুরোধে নয় অনুরাগে তোমাকে চাই,
অভিলাসে নয় অনুভবে তোমাকে চাই,
বাস্তবে না পেলেও কল্পনাতে তোমাকে চাই ।

১৮. অপেক্ষায় আছি অপেক্ষায় থাকবো,
যতদিন বেঁছে থাকি তোমায় মনে রাখবো,
যত কষ্ট হোক সব মেনে নেবো,
তবুও চিরদিন তোমাকেই ভালোবাসবো ।

১৯. অভিমান রাগ একমাত্র তার উপরেই করা যায়,
যাকে সবচেয়ে বেশী ভালোবাসা যায় ।

২০. আজ হটাত বৃষ্টি এলো ভিজে গেলো মন,
ভিজে গেলো সপ্নগুলো, ভিজলো চোখের কোন ।
বৃষ্টি ভেজা স্নিগ্ধ আকাশ, সৃতি কাড়ে মন,
হোক না বৃষ্টি অন্তরেতে হোক না সারাক্ষন ।

২১. কিছু সময় আসে হারিয়ে যাবার
আবার কিছু সময় আসে খুঁজে নিয়ে ধরে রাখবার
কখনো সময় আসে বুঝে নেবার, বুঝিয়ে দেবার,
কিছু সময় আসে সময়কে কাজে লাগাবার ।

২২. মেঘের হাতে একটি চিঠি পাঠিয়ে দিলাম আজ
বন্ধু আছি অনেক দূরে হাতে অনেক কাজ
বৃষ্টি তুমি একটি বার জানিয়ে দিও তাকে-
বন্ধু তোমার পাসেই আছি, হাজার কাজের ফাকে ।

২৩. চাঁদকে বলে একটু আলো দিতে পারি তোমায়
সেই আলোতে দেখে নিও পরান ভরে আমায়
বাতাস হয়ে উড়িয়ে নেবো মেঘেরই উপরে
সন্ধ্যা হলে পৌঁছে দেবো তোমার আপন ঘরে ।

২৪.তোমায় যদি না পাই আমি এই জীবনের তরে
এই জীবন যাবে মোর আধারে আধারে
আলো তুমি মোর নয়নের মাঝে
অন্তরের মানুষ তুমি এই প্রেমের দুনিয়াতে
আশা তুমি মোর জীবনের তরে
ভালোবাসার ঘর বানাবো তোমার মনের মাঝে ।

২৫. জীবনটা ধর সাগর আমার হৃদয় তার তীর
বন্ধু হলো সাগরের ঢেউ, তোমার সাগরে অনেক ঢেউ থাকতে পারে,
তবে বেপার হলো সবগুলো ঢেউ কি তীর স্পর্শ করতে পারে ?

২৬. ফুলের প্রয়োজন সূর্যের আলো
ভোরের প্রয়োজন শিশির
আর আমার প্রয়োজন তুমি
আমি তোমাকে ভালোবাসি ।

২৭. জানি না ভালোবাসার আলাদা আলাদা নিয়ম আছে কিনা
তবে আমি কোন নিয়মে তোমাকে ভালবাসেছি তাও জানিনা
শুধু এইতুকু জানি আমি তোমাকে অনেক অনেক ভালোবাসি ।

২৮. সকাল বিকেল বৃষ্টি পড়ে
        রাত দুপুরে মন পুকুরে
        নুপুর পরে শব্দ করে
         অচিন পুরে হৃদয় জুড়ে

২৯. আমার শুধু ইচ্ছে করে সঙ্গে বসে থাকি
        হারিয়ে যাওয়া সময়টাকে মুঠোয় ভরে রাখি
         হাওয়ার সাথে সময় কাবার  তোমার যাওয়ার সময় হল
         মনে মানে না ছাড়তে তোমায় আবার কবে আসবে বলো

৩০. ও পাখি তুই বাজিয়ে তোর শিষ
        ও’ পাড়ায় গেলে তাহাকে বলে দিস
        ব্যালকনিতে যাহার শাড়ি ওড়ে
         তাহার জন্য এখনো মন পোড়ে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।