গ্লোইং স্কিন পেতে ব্যবহার করুন এই প্রোডাক্টগুলি (Use these products to get glowing skin)

  • by

গ্লোইং স্কিন পেতে গেলে কি করতে হয়, কি না করতে, তার হাজার একটা পরামর্শ পাবেন. যেমন পর্যাপ্ত পরিমানে জল, খাওয়া, ফল, সাথে শাক সবজি খাওয়া- সবই তো ঠিক আছে. কিন্তু তারপর কি স্কিনে আমরা যে গ্লোটির আশায় বুক বেঁধে থাকি সেটি পাই? না. তার একমাত্র কারণ বেড়ে চলা পরিবেশ দূষণ.
প্রতিনিয়ত দূষিত পরিবেশের সাথে লড়াই করতে করতে আমাদের স্কিনও দুর্বল হয়ে পড়ে. তারপর কাজের প্রেসার আমাদের স্কিনের উজ্জ্বল ভাবটি যে কখন কেড়ে নেয়, বুঝতেই পারি না. তাই অগত্যা সেই ভরসা করতে হয়, ক্রিমের ওপর. আসলে খাবারের পুষ্টিগুণ, আমাদের স্কিনের পুষ্টি যোগায় ঠিকই, কিন্তু, ভিতর থেকে মোলায়েম বা উজ্বল করে তুলতে পারে না. তবে যে কোনো ক্রিম যে স্কিন উজ্বল করতে পারে তা নয়.

কোন কোন ক্রিম বা তেল আমাদের স্কিনকে গ্লো করে, চলুন দেখেনি, তার রেটিং এবং রিভিউস অনুসারে.

১. মামাইয়ার্থ এলো ভেরা গেল ফ্রম ১০০% পিওর এলো ভেরা

এই এলোভেরা জেলটি শুধু যে স্কিনের জন্য ভালো তা নয়, একই সাথে, চুলের জন্য যুগান্তকারী. আর হবে নাই বা কেন, এই জেলটিতে পিওর এলোভেরার গুনের সাথে কাঁচা হলুদের গুণও ভরপুর. মানে বোঝাই যাচ্ছে, কেন এই জেলটির নাম করলাম, স্কিন গ্লোইং এর ক্ষেত্রে- কারণ এলোভেরা যেখানে স্কিনকে কোমল করে তোলে, অন্যদিকে কাঁচা হলুদ আন্টি ব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে, ফলে স্কিনকে ভিতর থেকে উজ্বল করে. সাথে সাথে স্কিনের যাবতীয় সমস্যাকে করে টাটা বাই বাই.

২. আয়ুর্বেদিক স্যাফরন কুমকুমাদি অয়েল

স্যাফ্রন বা কেশর আমরা জানি আমাদের ত্বকের জন্য ভীষণ ভালো. বিশেষ করে আমাদের স্কিন তাঁকে উজ্বল করতে আর গ্লো করতে অনায়াসে বহুলরূপে কার্যকরী. আর সেটি যখন পুরো আয়ুর্বেদিক ভাবে তেলে ভিজিয়ে, তেলটি স্কিনের জন্য ব্যবহার করা হয়, সেটি স্কিন পুলিশিং হিসেবে কাজ করে. রিভিউ দেখেই নিশ্চই বুঝতে পারছেন, তেলটির এক মাস নিয়মিত ব্যবহারে, স্কিনের উজ্বলতা শুধু আপনি নয়, সকলের নজরে পড়ে. তাই বলতেই হচ্ছে, এই তেলটি ডাল স্কিন যাদের আছে, তাদের জন্য ভীষণ ভালো.

৩. লোটাস হোয়াটগ্লো ডিপ ময়শ্চারাইসিং ক্রিম

যাদের অতিরিক্ত তৈলাক্ত স্কিন তাদের জন্য এই ক্রিমটি রেকমেন্ড করা যায়. কারণ এটি স্কিনের তেল কন্ট্রোল করে একটা ফর্সা লুক দেয়. মুখের উনিভেন টোন ঠিক করতে সাহায্য করে সাথে, পিম্পল বা অন্য কোনো দাগ কালো ছোপ নির্মূল করে স্কিনকে অনেক বেশি উজ্বল করে তোলে.

৪.ওলে ন্যাচারাল হোয়াট লাইট ইনস্ট্যান্ট গ্লোইং ফেয়ারনেস ক্রিম

এটি অনেকেরই কাছে খুব পছন্দের একটি ক্রিম, সেটি নিশ্চয়ই এর রিভিউস দেখেই বুঝতে পারছেন. এটি স্কিনে একটা ইন্সটা গ্লো দেওয়ার সাথে সাথেই, স্কিনের যাবতীয় সমস্যার সাথে লড়াই করে. চোখের পাশের কুঁচকানো ভাব, বলিরেখা, সাথে, মুখের ছোপ দাগ সবটাই কিছুদিনের ব্যবহারেই পুরোপুরি নির্মূল করে দেয় এই ক্রিমটি. তাই একটু যাদের বয়স ত্রিশের বেশি, তাদের জন্য এটি বেস্ট.

এইভাবেই আপনিও বেছে নিনি আপনার স্কিন অনুসারে সঠিক ক্রিমটি. উপরোক্ত ক্রিমগুলির মধ্যে আপনার পছন্দের ক্রিম কোনটি, কমেন্টে জানান আমাদের.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।