আপনি কি মানসিক কষ্টে ভুগছেন? বিশিষ্ট সাইকোলজিস্ট শ্রীতমা ঘোষের কাছে জেনে নিন ভালো থাকার কিছু সিক্রেট(Are you suffering from mental distress? Here are some secrets to staying well with eminent psychologist Sritama Ghosh)

মনের কষ্ট এমনই একটা বিষয় যা নিয়ে অধিকাংশ মানুষ খোলাখুলি আলোচনা করতে দ্বিধা বোধ করেন, কিন্তু বর্তমান সময়ে আমরা সকলেই এটা বুঝে গেছি যে মনের সমস্যাকে চেপে রাখলে তার ফল খুবই খারাপ হতে পারে। ঠিক কখন বুজবো আমরা ভালো নেই? বা কখন আমাদের একজন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া উচিত? এরকম অনেক মূল্যবান প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন কনসালট্যান্ট সাইকোলজিস্ট, সাইকোলজি শিক্ষিকা, এবং স্পেশাল এডুকেটর শ্রীতমা ঘোষ। আসুন একটু দেখে নেওয়া যাক।

১) কোভিড পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন গৃহবন্দী থেকে মনের নানান অস্থিরতা বৃদ্ধি পাচ্ছে, কি করণীয়?

উত্তর- দীর্ঘ দিন গৃহবন্দী থাকার পরিস্থিতি কোভিড ছাড়া অন্য কারণেও হতে পারতো। সময় খুবই কঠিন কিন্তু এই সময় কিন্তু চিরকাল থাকবেনা, যারা কেবলমাত্র নিজেকে নিয়েই সুখী থাকতে পারেন তাদের ক্ষেত্রে দীর্ঘ সময় বাড়িতে থাকাটা অসুবিধেজনক হয়না। কিন্তু অন্যদের ক্ষেত্রে সারাদিনে কিছুটা সময় নিজের পছন্দের কাজ খুঁজে, সেগুলো অনুশীলন করলে গৃহবন্দী অবস্থায় নিজের বন্দি দশার অনুভূতি অনেকটাই কম হবে।

২) শিশুদের বিশেষত এই সময় নানা রকম সাইকোলজিক্যাল সমস্যা দেখা দিচ্ছে, এর থেকে রেহাই পাওয়ার কিছু উপায় যদি বলেন?

উত্তর- এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়াটা খুব মুশকিল, কারণ শিশুদের সঠিকভাবে বৃদ্ধির জন্যে তাদের খেলাধুলো এবং বাইরের জগতের সঙ্গে মেলামেশা করা খুবই প্রয়োজন। কিন্তু এই সময়টা একটু অন্যভাবে চলতেই হচ্ছে সকলকে, তাই বাচ্চাদের সারাদিনের রুটিন তৈরী করে দিলে, তাদের বাড়ির যেকোনো কাজে নিযুক্ত করলে দেখা যায় তারা খুবই আনন্দ পায়। এতে বাচ্চাদের বোর হওয়ার সুযোগও থাকেনা।

আরও পড়ুন-সাশ্রয়ী মূল্যের অনলাইন কাউন্সেলিং: সম্পর্ক, ডিপ্রেশন এবং স্ট্রেসের জন্য(Affordable Online Counseling: For Relationships, Depression and Stress)

৩) কাউন্সিলিং কিভাবে মানুষের মানসিক স্বাস্থ্য সুন্দর করতে পারে?

উত্তর- কাউন্সিলিং একটি বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি, যা বহু গবেষণাতে কার্যকরী প্রমাণিত হয়েছে। কাউন্সিলিংয়ের দ্বারা আমাদের জীবনযাত্রাতে বিশেষ কিছু ইতিবাচক পরিবর্তন আসে, আমরা অনেকেই মানসিকভাবে সাবলম্বী এবং সুখী হতে শিখি। সেইকারণে আমাদের জীবনে যে কোনো সমস্যার সমাধান করতে অনেকটাই সুবিধে হয় কাউন্সিলিংয়ের মাধ্যমে।

৪) কখন আমরা বুজবো যে আমাদের একজন কাউন্সিলরের কাছে যাওয়া প্রয়োজন?

উত্তর- যদি কোনো সমস্যার জন্যে নিজের শারীরিক, ব্যক্তিগত, সামাজিক ও অর্থনৈতিক জীবনধারার ক্ষতি হয় বা চারপাশে বেশিরভাগ মানুষের অসুবিধে সৃষ্টি করে, সেই মুহূর্তেই কাউন্সিলরের সাহায্য খুবই প্রয়োজনীয়। সঠিক সময়ে সঠিক সাহায্য পেলে যেকোনো সমস্যা সমাধান করা সহজ হয়।

আরও পড়ুন-মনোবিদ শ্রীমন্তী গুহর সঙ্গে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে কথোপকথন (Conversation about mental health with psychologist Srimanti Guha)

৫) আপনার তরফ থেকে কিছু বিশেষ বার্তা যদি দেন আমাদের পাঠকদের জন্যে?

উত্তর- আমি সকলের উদ্দ্যেশ্যে বলবো- নিজেকে বোঝার চেষ্টা করুন, নিজেকে সম্পূর্ণরূপে গ্রহণ করুন ও ভালোবাসুন। এটাই সুস্থ্য থাকার একমাত্র চাবিকাঠি।

Spark.Live এর কনসালট্যান্ট সাইকোলজিস্ট, সাইকোলজি শিক্ষিকা, এবং স্পেশাল এডুকেটর শ্রীতমা ঘোষের সঙ্গে অনলাইন পরামর্শের জন্যে লিংকটিতে ক্লিক করুন-https://spark.live/consult/counseling-and-cbt-for-depression-anxiety-stress-loneliness-with-dr-sritama-ghosh-bangla

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।