ইমিউনিটি বাড়িয়ে তুলতে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন এই ৬টি জুস্ (6 immunity booster juices that you can try at home)

জন জীবন কিছুটা স্বাভাবিক হলেও করোনার প্রানগ্রাসী ছায়া থেকে এখনও কাটেনি আতঙ্ক। লকডাউনের শুরু থেকেই চিকিৎসকেরা ঘনঘন হাত ধোয়া এবং মাস্ক পড়ার কথা বলছেন৷ তবুও অনেকেই এই ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। চিকিৎসকদের কথায়, ‘শরীরকে করোনা মুক্ত রাখতে হলে শরীরে ইমিউনিটি সিস্টেমকে বাড়াতে হবে’। আর এইখানেই হল যত সমস্যা, কারণ ইন্টারনেটের দৌলতে আমরা এখন অনেকেই সারাক্ষন যেতে চেক করে চলেছি, ইমিউনিটি বাড়িয়ে তোলার পদ্ধতি, কিন্তু সেখানে তো হাজার মুনির নান চিন্তা আর নানাধরণের উপদেশের কথা উঠে আসছে। আর সত্যি বলতে, ওই হাজার টি পরামর্শও কারোর পক্ষেই, পুরোটা মেনে চলা অসম্ভব। চলুন জানা যাক কিছু সহজ উপায়, যেগুলি অনুসরণ করলে, আপনার ইমিউনিটি হয়ে উঠবে স্ট্রং।

ঋতু পরিবর্তনের ফলে এখন ঘরে ঘরে আট থেকে আশি সকলেরই জ্বর, ঠান্ডা লাগা হাঁচির মতোন উপসর্গ লেগেই রয়েছে। হতেই পারে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তুলনামূলক ভাবে কম। ফলে ঘরোয়া পদ্ধতিতে বাড়িতে বানানো ৬ রকম জুস তৈরী করে খেলেই বাড়তে পারে ইমিউনিটি সিস্টেম।

ইমিউনিটি বুস্টার জুস্ –

১)কমলালেবু, আঙুরের জুস্ :

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি জাতীয় খাবার খাওয়া অতন্ত্য জরুরী। তাই প্রতিদিন ভিটামিন ‘সি‘ জাতীয় ফল যেমন, কমলা লেবু, আঙ্গুর এইগুলির সংমিশ্রণে একটি জুস তৈরী করে খেলে শরীরে ইমিউনিটি সিস্টেম সঠিক রাখা যায়।
ভিটামিন সি-এ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় আপনার দেহে কোষগুলিকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।

২) সবুজ আপেল, গাজর এবং কমলালেবুর মিশ্রণ :

গাজর, আপেল এবং কমলা লেবু আপনার শরীরকে রোগ সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করে। আপেল এবং কমলা লেবু আপনার শরীরে ভিটামিন ‘সি’ প্রদান করে। এছাড়াও ভিটামিন ‘এ’ও স্বাস্থ্যকর ইমিউনিটি সিস্টেম সোর্সের পক্ষেও গুরুত্বপূর্ণ, অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট বিটা ক্যারোটিন গাজরে থাকায় শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন-

৩) গাজর, আদা এবং আপেল সহকারে তৈরী জুস :

ক্যারট,জিঞ্জার এবং অ্যাপেল সহকারে তৈরী জুস আমাদের শরীরে ইমিউনিটি সিস্টেমকে সঠিক রাখতে সাহায্য করে। এইটি ঠান্ডা লাগা বা ফ্লু-এর মতোন বিষয় গুলি থেকে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এছাড়াও বাতজনিত রোগে যারা ভোগেন, তাদের পক্ষে এই রসটি খাওয়া খুবই উপকারী।

৪) টোমেটো রস :

আপনি প্রতিদিন যদি বাজার থেকে টাটকা টোম্যাটো কিনে তা ব্লেন্ডারে দিয়ে ভালো করে রস করে খেতে পারেন, তবে আপনার ইমিউনিটি সিস্টেম সঠিক থাকবে। ট্যোমাটোতে থাকে ভিটামিন ‘সি’। যা আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া টেষ্ট বাড়াতে এতে বিট নুন ও দিতে পারেন।

৫) কলা এবং ট্যোমাটো

এছাড়াও ইমিউনিটি পাওয়ার বাড়াতে সক্ষম ব্যানানা ও ট্যোমাটো সহযোগে একটি জুস। প্রতিদিন এইটি বানিয়ে খেলে আপনার শরীরে ইমিউনিটি পাওয়ার বাড়াবে তার সঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়বে। শুধুতাই নয় এই জুস টিকে খাওয়ার উপযোগী হিসাবে আরও মজাদার করার জন্য এতে বিট লবণ ও বাদাম ও অ্যাড করতে পাবেন।

আরো পড়ুন-

৬) স্ট্রবেরীর স্মুদি :

ইমিউনিটি সিস্টেমকে চাঙ্গা রাখতে হলে, বাড়িতেই স্ট্রবেরী স্মুদি বানিয়ে আপনি খেতে পারেন। স্ট্রবেরীতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি থাকে যা আপনার শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এক কাপ স্ট্রব্রেরী রসের সঙ্গে তাতে সামান্য দুধ মিশিয়ে খেলে এতে প্রোটিন এবং ভিটামিন ২টোই আপনার শরীরের যাচ্ছে। যা আপনার শরীরের পক্ষে খুবই প্রয়োজনীয়।

এই জুস্ বা স্মুদি গুলি বানানো একেবারেই ঝামেলার জিনিস নয়, বাড়িতে থেকে যে কোন সময়, এই জুসগুলি বানিয়ে খেতে পারেন, আবার অফিসে যাতায়ত করলে, কাজে যাওয়ার আগে বা কাজ থেকে ফেরার পরে একবার খেলেই, আপনার ইমিউনিটি বাড়িয়ে তুলতে আপনি অনেকটা কার্যকর হবেন। সবচাইতে ভালো হয়, সকালে আধঘন্টা শরীরচর্চা করার পর, এই জুস্ খাওয়া, আবার অফিসেও একটি বোতলে ভোরে নিয়ে যেতে পারেন এই জুস্, সময়ে সময়ে খেয়ে নিলেই, শরীর ও ইমিউনিটি দুটিকেই যত্ন নিতে পারবেন।

Spark.Live-এর বিশিষ্ট ডায়টেশিয়ানদের সাহায্য নিন –

এই মুহূর্তে দেশের প্রথম সারির একাধিক পুষ্টিবিদরা যুক্ত হয়েছেন এর সাথে। তার নিজেদের অভিজ্ঞতার হাত ধরে সহস্রাধিক মানুষকে উপযুক্ত ডায়েট দিয়ে প্রতিনিয়ত সুস্থ্যতার দিকে পরিচালিত করছেন। আপনার সমস্যাটি যেমনই হোক না কেন – ওজন কমানোর চেষ্টা, সুস্থ্য থাকার চেষ্টা, ডায়বেটিস রোগের ক্ষেত্রে সাবধানতা সকল প্রকার ডায়েট চার্ট পাবেন তাদের কাছে, তাও একেবারে পকেট ফ্রেইন্ডলি সেশন ফিতে। তাই আর দেরি নয়, নিজের ইমিউনিটি বাড়ানোর ক্ষেত্রে উপযুক্ত গাইডেন্স পেতেও আজই নিজের সেশন বুক করুন এই লিংকে ক্লিক করে-https://spark.live/dietician-nutritionist-consultation/

সাহায্যকারী প্রতিবেদন- https://www.healthline.com/health/juice-immune-system-boost

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।