কোন পাঁচটি পরিচিত বৈবাহিক সমস্যা, যেগুলি জ্যোতিষবিদ্যার মাধ্যমে নিরাময় সম্ভব? (5 common Marriage problems that astrology can help solve )

দীর্ঘ বৈবাহিক জীবনে কারো সমস্যা নেই, তা মানা যায় না। কারণ একসাথে থাকলে, জীবনের সব সুখ দুঃখে পাশাপাশি থাকা মানেই, ছোট বড় ঝামেলা লেগেই থাকা। আর কথায় আছে না, ঝগড়ায় সম্পর্ক আরও পোক্ত হয়, আরও নিবিড় হয়। খুটখাট ঝামেলা তো চলো ঠিক আছে, কিন্তু নিজের বৈবাহিক সম্পর্কে চূড়ান্ত সমস্যার শিকার হতেও দেখা গিয়েছে অনেক দম্পতিকে। সমস্যা এতটাই তীব্রতর যে, বিবাহ বিচ্ছেদ তো খুব কমন বিষয়, এমনকি মারধর, বধূ নির্যাতন এমনকি খুনের মতোও ঘটনার সাক্ষী হতে হয়েছে অনেকে। খবরের কাগজগুলিতে চোখ রাখলেই, এইরকম ঘটনা নজরে পড়বেই পড়বে। শুধুমাত্র বনিবনা হচ্ছে না, মনোমালিন্য তার জেরে সংসারে অশান্তি। আর সেই অশান্তি শেষে এতটাই ভয়াবহ রূপ নেয়, যার কল্পনা হয়তো কেউই আগে থেকে করতে পারে না।

কিন্তু জানেন, যে কোনো সমস্যা মানে গুরুতর সমস্যা আসার আগে বেশ কয়েকবার জানান দেয়। অনেক ইঙ্গিতের মাধ্যমে বোঝানোর চেষ্টা করে, বা বলা চলে সতর্ক করার চেষ্টা করে। কিন্তু আমরা সেগুলো হয় বোঝতেই পারি না, বা বুঝেও কি করবো সেটাই জানিনা। সব সময়ের আঁচ কিন্তু বোঝা যায়, সঠিক জ্যোতিষ বিচারের মাধ্যমে। একেবারেই, যথার্থ পদ্ধতিতে গ্রহ নক্ষত্রের বিচার বা কোনো সমস্যা চলাকালীন, তা কোনো বিশিষ্ট জ্যোতিষের দ্বারা বিচার করলেই, নিরাময়ের পথ বেরিয়ে আসে। শুধু লাগে, নিজেকে সতর্ক করে তোলা আর জ্যোতিষশাস্ত্রের ওপর বিশ্বাস। আজ আলোকপাত করব- জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, বিবাহ জীবনের কোন কোন সমস্যাগুলি নিরাময় সম্ভব জ্যোতিষ উপাচারের মাধ্যমে?

বিয়ের ক্ষেত্রে তৈরী হয় সমস্যা-

১। লাভ ম্যারেজ বা দেখাশোনা করে বিয়ে হোক না কেন, সব সময়েই বিয়ের মতো বড় পদক্ষেপ নেওয়া উচিত ভাবনা-চিন্তা করে। দেখাশোনা করে বিয়ে ঠিক হলে, আমরা কিন্তু ছেলে এবং মেয়েটির বিষয়ে সবরকম খোঁজখবর নিয়ে থাকি। আবার যাতে কোনো শারীরিক সমস্যার মধ্যে না পড়তে হয়, তাই কিছু চিকিৎসাগত টেস্টও দুই পরিবার করতে পিছ পা হন না।

আর তার সাথে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়, দুই ভাবি স্বামী-স্ত্রীয়ের কুন্ডলি ম্যাচে। কত গুন্ মিলছে, বা কোন কোন ক্ষেত্রগুলি মিলছে, কোনগুলিতে মিল থাকছে না, সবটারই একটি পরিষ্কার হিসেবে নিকেশ মেলে। তাতে বিয়ের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া অনেক সহজ হয়ে ওঠে। সমস্যাটি হয়, যাদের লাভ ম্যারেজ তাদের ক্ষেত্রে। কারণ কুষ্ঠি বিচারের তেমন মিল না পেলেও, তারা বিয়ের সিদ্ধান্তের থেকে পিছ পা হন না। তাই পরে গিয়ে নানা সমস্যা আসতেই পারে তাদের জীবনে। এক্ষেত্রেও কিন্তু কিছু উপাচার আছে, যেগুলি সমস্যা নিবারণের ক্ষেত্রে যথেষ্ট।

সঠিক ভাবে কুষ্ঠি মিলন প্রয়োজন

আমাদের স্বনামধন্য জ্যোতিষবিদদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে উপরের ছবিতে বা পাশে দেওয়া লিংকে ক্লিক করুনhttps://spark.live/book-online/astrology-consultation/

২। যখন আমরা দুটি কুষ্ঠি মেলাই, তখন আমাদের ফোকাস থাকে কতগুলি গুন্ মিললো। ওই যে ৩৬ গুনের মধ্যে যতগুলি গুন্ বেশি মিলবে ততই ভালো। এটি কিন্তু একটি ভ্রান্ত ধারণা। স্বনামধন্য কিছু জ্যোতিষরা আছেন, যারা বলেছেন, বিবাহ নির্দিষ্ট করার ক্ষেত্রে কুষ্ঠি মিলনের সময়, কতগুলি গুন্ মিলল সেটি যেমন দেখা দরকার, তেমনি কোন কোন ক্ষেত্রে কত কত সংখ্যা মিলল, মানে, সব বিভাগগুলির কত নাম্বার মিললো, সেটি জানা ভীষণ প্রয়োজন।

কর্মফল দূর করা –

আমাদের স্বনামধন্য জ্যোতিষবিদদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে উপরের ছবিতে বা পাশে দেওয়া লিংকে ক্লিক করুনhttps://spark.live/book-online/astrology-consultation/

৩। আবারো অনেক সময়, আপনার কর্ম অনুসারে আপনার ভাগ্য পরিবর্তিত হতে থাকে। এই জন্মের কোনো গাফিলতির বাজে ফল আপনার বৈবাহিক জীবনে বাধা দিতে পারে। অনেক জ্যোতিষীদের মতে, শুধু বর্তমান জন্ম নয়, অনেকেরই আগের জন্মের ফল ভুগতে হয়, এই জন্মে। সেক্ষেত্রেও জীবনের নানা ধাপে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এই ক্ষেত্রটির থেকেও উদ্ধারের উপায় আছে জ্যোতিষক্ষেত্রে। সঠিক উপায় অবলম্বনে সমস্যার নিবারণ সম্ভব।

সঠিক ভাবে ভেবে-চিন্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া –

৪। অনেক সময় আমরা ভাবুক হয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি, যার পরিণতি সব সময় ভালো হয় না। আসন্ন বিপদ বুঝেও, আমরা নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দিয়ে ফেলি। কিন্তু একদিনে কিন্তু পরিস্থিতি খারাপ হয় না। কোনো বড় রোগ হওয়ার আগে যেমন নানা ধরণের উপশম দেখা যায় শরীরে, তেমনি কোনো বড় ঝড় আসার আগে, সেটির ইঙ্গিতও পাওয়া যায়।

আমাদের স্বনামধন্য জ্যোতিষবিদদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে উপরের ছবিতে বা পাশে দেওয়া লিংকে ক্লিক করুনhttps://spark.live/book-online/astrology-consultation/

তাই যে কোন রকম সমস্যার অভ্যাস পেলেই, তার যথার্থ উপাচারের পদ্ধতি জানুন, কোন বিশিষ্ট জ্যোতিষের কাছ থেকে। সময় থাকতেই, সমস্যাকে গোড়া থেকে উৎখাত করুন।

সমস্যার ভয়াবহতার আগেই ব্যবস্থা নেওয়া –

৫। জ্যোতিষশাস্ত্র তার মন্ত্র, তার উপাচার, তার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আপনার জীবনকে একটি আত্মরক্ষার কবচ দেয়। যেটি আপনাকে সাহায্য করে সমস্যার মুখোমুখি দাঁড় হলেও, সুস্থ অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে। যে সমস্যায় আপনার আবার উঠে দাঁড়ানোই প্রায় সম্ভব ছিল না, সেই ক্ষেত্রে আপনাকে আবার সঠিক পথের ঠিকানা দেওয়া।

আমাদের স্বনামধন্য জ্যোতিষবিদদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে উপরের ছবিতে বা পাশে দেওয়া লিংকে ক্লিক করুনhttps://spark.live/book-online/astrology-consultation/

এইরকম অনেক বিয়ে দেখা গিয়েছে, যাদের বিয়ে ভেঙে যাওয়ার কথা, কিন্তু, শুধুমাত্র জ্যোতিষবিদ্যার সংস্পর্শ তাদের উন্নীত করতে সাহায্য করেছে নানা সমস্যা। অনেক দম্পতি যাদের মতের মিল ছিল না, বা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছিল, তারা আজ সুখময় শান্তির জীবন কাটাচ্ছেন।

তাই আর দেরি না করে, আজই আমাদের বিখ্যাত জ্যোতিষিদের সাথে বাড়িতে বসেই মুঠোফোনটির মাধ্যমে কনসাল্ট করুন। লাইভ ভিডিও সেশনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে সব রকম সমস্যার সমাধান করুন। এই ক্ষেত্রে আপনার পুরো সেশনটি থাকবে গোপনীয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।