মন খুলে হাসলেই, মুক্তি পাবেন এই পাঁচটি সমস্যার থেকে (5 amazing health benefits of smiling)

  • by

আপনি রোজ হাসেন তো? হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন, হাসার কথা বলছি। কারণ আপনার হার্ট মানে হৃদয়ের সবচাইতে কার্যকরী ওষুধই হল মন খুলে হাসা। জানি, এই মুহূর্তে, করোনার থাবা যেভাবে আমাদের জীবনে একটি সাংঘাতিক প্রভাব ফেলছে, সাথেই অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়তে হচ্ছে সকলকে, তাতে হাসির কথা বড্ডো বেমানান। কিন্তু এই মুহূর্তে নিজের শরীরকে উপেক্ষা করলে তো চলবে না, বিশেষ করে আপনার হার্টের যত্ন তো ভীষণ ভাবে প্রয়োজন, তাই হাসুন

একটি মেডিক্যাল সার্ভে অনুসারে, নিজের হার্টকে সুস্থ রাখতে হাসাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। বর্তমান সময়ে সারাদিনের ব্যাস্ততায়, অফিসের কাজ, বাড়ির কাজ সবকিছুকে সামলাতে গিয়ে আমরা সকলেই হাসতে ভুলে যাচ্ছি। ফলে নানা ধরনের স্ট্রেজ জাঁকিয়ে বসছে আমাদের শরীরে। এটা ঠিক যে হার্টকে সুস্থ রাখতে সুষম খাদ্যের গুরুত্ব অনেক। তবে আপনি কি জানেন যে হাসিও ঠিক ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। বেশকিছু গবেষণায় দেখা গেছে যারা একটু বেশীই গম্ভীর তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকটাই বেশি। ফলে হাসি আপনার শরীরে ইমিউনিটি সিস্টেমকে শক্তিশালী করে এবং দেহে শক্তি প্রদান ও চাপ মুক্ত করে। তাই বিভিন্ন কমেডি সিনেমা দেখুন বা মজার মজার জোক্স গুলো পড়ুন। পড়ে হাসুন। দেখবেন আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ বোধ করছেন।

চলুন জানা যাক নিয়মিত হাসলে, আপনার কি কি ভাবে উপকার হবে –

১) রক্তচাপ হ্রাস :

হাসি আপনার শরীরে উচ্চ রক্তচাপকে হ্রাস করে এবং হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের মতেন ঝুঁকি পূর্ণ বিষয়টি থেকেও আপনাকে রক্ষা করে।

২) স্ট্রেস হরমোনের মাত্রা হ্রাস করা :

হাসি আপনার সারাদিনের স্ট্রেসকে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনে। এছাড়াও শরীরে হরমোনের অতিরিক্ত ক্রিয়াকে হ্রাস করা এবং শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। ফলে আপনার হার্টও ভালো থাকে।

আরও পড়ুন –

৩) কোষের সংখ্যা বৃদ্ধি :

হাসি শরীরে টি-সেলের সংখ্যা বাড়াতে সাহায্য করে। এইগুলি শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এব হার্টকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখে।

৪) রক্তনালীগুলির কার্যকারিতা উন্নত করা :

শরীরে রক্ত ​​প্রবাহ বৃদ্ধি হলে হৃদরোগের জন্য তা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। ফলে তাই অত্যাধিক হাসি আপনার শরীরে রক্তনালি গুলিকে উন্নত রাখার পাশাপাশি ব্লাড সার্কুলেশনকেও উন্নত করে।

৫) কার্ডিওভাসকুলার হেলথ :

হাসি একটি দুর্দান্ত কার্ডিও ওয়ার্কআউট, বিশেষত যারা অন্যান্য শারীরিক কার্যকলাপ করতে অক্ষম তারা এইটি করতে পারেন। এটি আপনার হার্ট পাম্পিং করে এবং ধীর থেকে মাঝারি গতিতে হাঁটার ভিত্তিতে প্রতি ঘন্টায় একই পরিমাণে ক্যালোরি কমায়।

আরও পড়ুন –

ভাবতে পারছেন, শুধুমাত্র মুখে হাসি আনলেই, আপনি মুক্তি পাবেন এতো গুলি সমস্যার থেকে। নিজেকে খুশি তো রাখতে পারবেন সাথে নিজের হার্টকেও করতে পারবেন ভালোমত প্যাম্পার।

Spark.Live এর ডায়েট সেশন হল একমাত্র পথ-

ভারতের নিজস্ব অ্যাপ-এ এই মুহূর্তে যুক্ত আছে ভারতের প্রথম সারির সকল পুষ্টিবিদরা, যারা সকলেই লাইসেন্সড প্রাপ্ত, এবং দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতা-সম্পন্ন। নিজের বাড়িতে বসেই, আপনি অনায়াসে যাদের সাথে যুক্ত হতে পারবেন নিজের ফোন, কম্পিউটার বা ল্যাপটপের সাহায্যে। অনলাইনে সেশন নিচ্ছেন বলে ভাবছেন কতটা ঠিকঠাক ডায়েট চার্ট পাবেন বা সমস্যার সমাধান হবে? একেবারেই নিশ্চিন্ত থাকুন। কারণ প্রত্যেক পুষ্টিবিদরাই আপনার সমস্যাটি জানার পর কিছু নির্দিষ্ট পরীক্ষার মাধ্যমে আপনার জন্য কোনটি ঠিক আর কোনটি ভুল সেটির ওপর ভিত্তি করেই আপনার ডায়েট চার্ট দেবেন। এবং রুটিন চেকাপের ব্যবস্থাও থাকবে অনলাইনে। সবচাইতে বড় বিষয়, এখনো পর্যন্ত এই অ্যাপ-এর মাধ্যমে ডায়েট সেশন নিয়ে উপকৃত হয়েছেন সহস্রাধিক মানুষ। তাই আপনার ভাবনার কোনো কারণই নেই। আজই নিজের স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নবান হতে সেশন নিন এই লিংকে ক্লিক করে –https://spark.live/dietician-nutritionist-consultation/

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।